বাংলাদেশ ট্যারিফ কমিশন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ৫ জুলাই ২০১৭

বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তি ২০১৭-২০১৮

সাম্প্রতিক অর্জন, চ্যালেঞ্জ এবং ভবিষ্য পরিকল্পনা:

 

সাম্প্রতিক বছরসমূহের ( বছর) প্রধান অর্জনসমূহ:

বাংলাদেশ ট্যারিফ কমিশনের সাম্প্রতিক অর্জনের মধ্যে উল্লেখযোগ্য বিষয়সমূহ হচ্ছে - দক্ষিণ আফ্রিকা, তুরস্ক, চীন, শ্রীলংকা, ভূটান,মেসিডোনিয়া, গালফভূক্ত দেশসমূহের সাথে বাংলাদেশের প্রেফারেন্শিয়াল/মুক্ত বাণিজ্য সংক্রান্ত প্রতিবেদন, রাইস ব্রান অয়েল, কসমেটিকস ও টয়লেট্রিজ, আইটি আউট সোর্সিং, ভোজ্য তেল, ফুল চাষ, সিমেন্ট, তরল ও গুড়ো দুধ, সিরামিক, এনার্জি সেভিং বাল্ব, স্টিল, চিনি, ট্যুরিজম, চামড়া ও চামড়াজাত পণ্য, মটর সাইকেল শিল্পের উপর সমীক্ষা প্রতিবেদন প্রণয়ন করা। তাছাড়া Bangladesh Journal of Tariff and Trade শীর্ষক একটি ত্রৈমাসিক জার্নাল এর ৩টি প্রকাশনা সম্পন্ন হয়েছে ও নিয়মিত প্রকাশ করা হচ্ছে। এন্টি-ডাম্পিং, কাউন্টারভেইলিং, সেইফগার্ড বিষয়ে ৪টি প্রশিক্ষণ কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়েছে। ঢাকা, রাজশাহী, রংপুর, চট্টগ্রাম, কুমিল্লা, বরিশাল, খাগড়াছড়ি, নারায়নগঞ্জ জেলায় ১৭টি সচেতনতা কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সমস্যা এবং চ্যালেঞ্জসমূহ:

কমিশনের কার্য সম্পাদনের প্রধান সমস্যা ও চ্যালেঞ্জসমূহ হচ্ছে - তথ্য উপাত্তের স্বল্পতা, সময়মত তথ্য উপাত্ত না পাওয়া, প্রশিক্ষিত জনবলের স্বল্পতা, অত্যাবশ্যকীয় পণ্য বিপণন ও মনিটরিং সেলের কার্যক্রম গতিশীল করার জন্য সফটওয়্যার এর অভাব এবং অর্থ ও বাণিজ্য খাতে সমন্বিত ডাটাবেজ প্রণয়ন ও রক্ষণাবেক্ষণ ।

ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা:

বাংলাদেশ ট্যারিফ কমিশনের ভবিষ্যৎ পরিকল্পনার মধ্যে রয়েছে দেশীয় শিল্পের স্বার্থ সংরক্ষণের লক্ষ্যে শুল্ক কাঠামো যৌক্তিকীকরণ; অত্যাবশ্যকীয় পণ্যের মূল্য পর্যবেক্ষণপূর্বক বাজার স্থিতিশীল রাখার ব্যাপারে সরকারকে সহযোগিতা প্রদান; বাণিজ্য প্রতিবিধান ব্যবস্থা বিষয়ে ব্যবসায়ী সমাজের সক্ষমতা বৃদ্ধির জন্য সেমিনার ও প্রশিক্ষণ আয়োজন; সমীক্ষা প্রতিবেদন সম্পন্ন করে দেশীয় শিল্পের উন্নয়নে নীতি নির্ধারণের জন্য সহায়তা প্রদান; SAFTA, APTA, TPS-OIC, D-8, BIMSTEC, WTO বিষয়সমূহ পর্যালোচনাপূর্বক বাংলাদেশের নেগোসিয়েশন কৌশল নির্ধারণ ।

২০১৭-১৮ অর্থবছরের সম্ভাব্য প্রধান অর্জনসমূহ:

১. দেশীয় শিল্পের স্বার্থ সংরক্ষণের লক্ষ্যে শুল্ক কাঠামো যৌক্তিকীকরণ

২. এন্টি-ডাম্পিং,কাউন্টারভেইলিং,সেইফগার্ড বিষয়ে  সচেতনতা কর্মসূচি ও প্রশিক্ষণ আয়োজন

৩. জাতীয় স্বার্থ সংরক্ষণের লক্ষ্যে দ্বিপাক্ষিক, আঞ্চলিক ও বহুপাক্ষিক বাণিজ্য নেগোসিয়েশনের ক্ষেত্রে কৌশলগত সহায়তা প্রদান

APA2017-18BTC.pdf APA2017-18BTC.pdf

Share with :
Facebook Facebook