বাংলাদেশ ট্যারিফ কমিশন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ২৮ নভেম্বর ২০১৭

বাংলাদেশ ট্যারিফ কমিশনের ইতিহাস মিশন-ভিশন

ইতিহাসঃ

 

ট্যারিফ কমিশন পাকিস্তান ট্যারিফ কমিশনের পূর্ব পাকিস্তান শাখার উত্তরবর্তী। বাংলাদেশ স্বাধীন হওয়ার পর এর নতুন নাম হয় ট্যারিফ কমিশন। বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের ২৮ জুলাই ১৯৭৩ তারিখের সিদ্ধান্তবলে উক্ত মন্ত্রণালয়ের একটি অধীনস্থ অধিদপ্তর হিসেবে কাজ শুরু করে। ১৯৯২ সনের নভেম্বরে উক্ত কমিশন বাংলাদেশ ট্যারিফ কমিশন আইন ১৯৯২ (১৯৯২ সনের ৪৩ নম্বর আইন)-এর অধীনে বাংলাদেশ ট্যারিফ কমিশন নামে  পূর্ণগঠিত  হয়। বর্তমানে এটি দেশীয় শিল্পসমূহকে অসম প্রতিযোগিতা থেকে রক্ষা ও যথাযথ সংরক্ষণের লক্ষ্যে একটি স্বায়ত্তশাসিত বিধিবদ্ধ সংস্থা হিসেবে কাজ করছে।

 

ভিশন:

বিশ্বায়নের ক্রমবর্ধমান প্রভাবের পটভূমিতে স্থানীয় শিল্পের স্বার্থ সুরক্ষা, শিল্প সম্পদ উৎপাদনে সৎ প্রতিযোগিতা উৎসাহিতকরণসহ আন্তর্জাতিক, আঞ্চলিক, দ্বি-পাক্ষিক ও বহুপাক্ষিক বাণিজ্য কার্যক্রম ও চুক্তি সম্পাদনে সরকারকে বস্তুনিষ্ঠ ও প্রয়োগিক পরামর্শ প্রদান করা।

 

মিশন:

শুল্কহার যৌক্তিকীকরণ, শিল্পখাত বিষয়ে গবেষণা ও বাণিজ্য প্রতিবিধান সংক্রান্ত বিধিমালার আলোকে দেশিয় শিল্পের ন্যায়সঙ্গত স্বার্থ সংরক্ষণ, অত্যাবশ্যকীয় পণ্যের বাজারদর নিরীক্ষণ ও পর্যালোচনাপূর্বক সরকারকে পরামর্শ প্রদান এবং বাংলাদেশের বৈদেশিক বাণিজ্য পর্যালোচনাসহ বিভিন্ন দেশের সাথে মুক্ত / অগ্রাধিকারমূলক বাণিজ্য চুক্তি গঠনের সম্ভাব্যতা যাচাই বিষয়ক সমীক্ষা পরিচালনার মাধ্যমে দ্বি-পাক্ষিক, আঞ্চলিক ও বহুপাক্ষিক চুক্তি সম্পাদনে সরকারকে কৌশলগত পরামর্শ প্রদান।

 


Share with :
Facebook Facebook